Home EMERGENCY STATE প্রায় একশ বছর পর ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি – রুপালি পর্দার নায়িকা চলে...

প্রায় একশ বছর পর ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি – রুপালি পর্দার নায়িকা চলে এলেন মুম্বাইয়ের করোনা হাসপাতালের নার্সিং সেবায় ! তিনি কে ?

3240
0

BREAKING NEWS

আনন্দ মুখোপাধ্যায় :: স্পট নিউজ :: ২৯শে মার্চ :: কলকাতা ::

এমনটি এর আগে একবারই দেখেছিলো ভারতবাসী । তিনি ছিলেন হায়দ্রাবাদের বেগম ” নিলুফার সুলতানা “। তাঁর যশ,প্রতিপত্তি অথবা অর্থ কিছুরই অভাব ছিলোনা কারণ তিনি ছিলেন হায়দ্রাবাদের বেগম সেই সমসাময়িক বিশ্বে তাঁরাই ছিলেন সবথেকে ধোনি পরিবার । ১৯৩৪/৩৫ সালের কথা,সেই সময় বিশ্বযুদ্ধ চলছে । আহত হয়ে শয়ে শয়ে ভারতীয় সেনা যারা ব্রিটিশদের হয়ে লড়ছিলেন তাঁরা দেশে ফিরছিলেন । সেই সময় সাধারণত কোনো মহিলা এই পেশায় স্বেচ্ছায় আসতে চাইতেন না ।

বেগম ” নিলুফার সুলতানা “

নিলুফারের আগেই নার্সিং এর প্রশিক্ষণ নেওয়া ছিল তাই তিনি ঠিক করলেন আহত ভারতীয় সেনাদের সেবা করবেন হসপিটালে নার্স হয়ে ।স্বামীর অনুমতি না পেয়ে তিনি তাঁর শ্বশ্রূপিতা সপ্তম নিজাম আসমান আলী খান – অসাফজাহ এর প্রশ্রয়ে এবং অনুমতিতে তিনি নিজামদের তৈরী হাসপাতালেই আহত সৈনিকদের সেবা শুরু করে দেন । এখনও হায়দ্রাবাদে সেই হাসপাতাল আছে “নিলুফার হাসপাতাল” নাম ।

শিখা মালহোত্রা

ইতিহাস হয়তো অনেকটাই তার পুনরাবৃত্তি ঘটায় কালে কালে তাই আমরা দেখতে পাই এক অসাধারণ ঘটনা যা সম্প্রতি ঘটলো আমাদের এই মহান দেশ ভারতবর্ষে ।করোনায় আক্রান্তদের সাহায্য করতে চিত্রজগত ছেড়ে নার্সের কাজে ফিরে গেলেন বলিউড অভিনেত্রী শিখা মালহোত্রা। তিনি বর্তমানে মুম্বাইয়ের বালাসাহেব ঠাকরে ট্রমা হাসপাতালের আইসোলেশন বিভাগে সাহায্য করছেন করোনা আক্রান্তদের।

রুপালি পর্দার জগতে পা দেবার আগে নার্সিং কোর্স সম্পন্ন করেছিলেন সঞ্জয় মিশ্রর সঙ্গে ‘কাঞ্চলি’ ছবিতে অভিনয় করে দারুণ জনপ্রিয়তা পাওয়া অভিনেত্রী শিখা মালহোত্রা। নার্সের পোশাকে শিখার ছবি ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

মুম্বাইয়ের যোগেশ্বরী পূর্বের বালাসাহেব ঠাকরে ট্রমা হাসপাতালের আইসোলেশন বিভাগের জরুরি সেবা দান করছেন তিনি। ২০১৪ সালে দিল্লির নার্সিং কোর্স শেষ করেন শিখা ৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here