Home EMERGENCY STATE তিনি লড়ছেন যুদ্ধক্ষেত্রের একেবারে সামনের সারি থেকে – তাঁর মতে রাজ্যে করোনা...

তিনি লড়ছেন যুদ্ধক্ষেত্রের একেবারে সামনের সারি থেকে – তাঁর মতে রাজ্যে করোনা জনিত মৃতের সংখ্যা ৬ নয় মাত্র তিন ! কি বলছেন দিদি ?

5620
0

EMERGENCY STATE

আনন্দ মুখোপাধ্যায় ::স্পট নিউজ :: নিউজ ২০ টোয়েন্টি :: ১লা এপ্রিল ::

কলকাতা :: রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কিন্তু সত্যিই ইতিহাস সৃষ্টি করছেন । লড়ছেন যুদ্ধক্ষেত্রের একেবারে সামনের সারি থেকে ।এই লড়াইয়ের কোনো বিকল্প নেই । আজকেই তিনি নবান্নে বৈঠক করলেন । জানালেন এই রাজ্যের করোনা আক্রান্তদের যে পরিসংখ্যান সংবাদ মাধ্যম জানাচ্ছে তার সঙ্গে একমত নন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় ।

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের খবর লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী এই তথ্যে বিশ্বাসী নন । তিনি বলেছেন বুধবার দুপুর পর্যন্ত রাজ্যে ৩৭ জন আক্রান্ত হয়েছেন। পাশাপাশি রাজ্যে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা নিয়েও দ্বিমত পোষণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

বিভিন্ন হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজ্যে এখনও পর্যন্ত করোনা সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৬ জনের। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন বুধবার দুপুর পর্যন্ত রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের কাছে মাত্র ৩ জনের মৃত্যুর খবর রয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ৬ জনের মৃত্যুর যে কথা বলা হচ্ছে, তার মধ্যে একজনের মৃত্যু হয়েছে নিউমোনিয়ায় এবং অপরজনের মৃত্যু হয়েছে কিডনি ফেলিওরে। তিনজনের মৃত্যু কনফার্ম, বাকি গুলো কনফার্ম না করে খবর সম্প্রচার করবেন না, অনুরোধ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

করোনা আইসোলেশন সেন্টার রাজারহাট

গত ১৫ মার্চের পর থেকে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন হাসপাতালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অবস্থায় এখনো পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে অন্তত ৬ জনের। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অবস্থায় মৃত্যু হলেও তাঁদের মৃত্যুর জন্য সংক্রমণই দায়ী এমনটা মানতে রাজি নন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় ।

এই লড়াইয়ের কোনো বিকল্প নেই

এদিন নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে মমতা বলেন, ”আজ বিকেল ৪টে পর্যন্ত রাজ্যে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। ৩৭ জনের মধ্যে ৩ জন সুস্থ। এখন ৩১ জন পজিটিভ। ওঁদের মধ্যে ১৭ জন ৪টি পরিবারের। একজনের মৃত্যু হয়েছে নিউমোনিয়ায়, আরেক জনের মৃত্যু হয়েছে কিডনির সমস্যায়। সরকারি তথ্যের উপর চোখ রাখুন”।

জরুরি ভিত্তিক লকডাউন যে রাজ্যের এক শ্রেণীর মানুষের মানতে অনীহা মানুষের রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় অনেক মানুষকে একসঙ্গে দেশা যাচ্ছে। অনেককে আবার ক্যারাম খেলতে কিংবা গল্প করতেও দেখা যাচ্ছে সেই তথ্য মুখ্যমন্ত্রীর কাছেও পৌঁছেছে । তিনি সংযত প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন এই ধরনের ভুল করবেন না। বারবার আহ্বান করছেন টিকিৎসকরা। এদিন ফের একবার আবেদন জানালেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, পরের দুই সপ্তাহ খুব গুরুত্বপূর্ণ। সামনের ২ সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনে থাকুন, নাহলে গোটা দেশ বিপর্যয়ের সম্মুখীন হতে চলেছে ।

স্পট নিউজের পক্ষ থেকেও আমরা সমস্ত রাজ্যবাসীর কাছে আবেদন জানাচ্ছি খুব প্রয়োজন না থাকলে বাইরে বেরোবেন না । নিজের স্বার্থে তো বটেই দেশ এবং মানব সভ্যতার স্বার্থে দয়া করে ঘর থেকে বাইরে আসবেন না ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here